স্বল্প সময়ে আইবিএর ভর্তি প্রস্তুতি

তখন ২০১১ সাল, মাত্রই বুয়েট থেকে গ্রাজুয়েশন শেষ করেছি । প্ল্যান ছিল ডিসেম্বরে আইবিএতে পরীক্ষা দিব ।
হঠাৎ করেই ঘোষণা আসলো আইবিএ ডিসেম্বরের পাশাপাশি এখন জুনেও ১টা নতুন ইনটেক চালু করছে । হিসেব করে দেখলাম সময় হাতে আছে মাত্র ৩৮ দিন !
তখন পর্যন্ত জানিও না যে, আইবিএর প্রশ্নের ধরন কেমন । দিব কি দিব না এরকম ভাবতে ভাবতে সিদ্ধান্ত নিয়ে নিলাম যে, লেটস ট্রাই । চান্স পেলে পেলাম না পেলে নাই !
প্রথমে আগের বছরের কিছু প্রশ্ন শলভ করলাম । ইঞ্জিনিয়ারিং ব্যাকগ্রাউন্ড থাকার কারণে ম্যাথ আর এনালাইটিক্যালে খুব ১টা ঝামেলা হল না । বুঝলাম মেইন ফোকাস করতে হবে ইংলিশে ।
আমি হিসেব করে দেখলাম, আমাকে দৈনিক কমপক্ষে ৭-৮ ঘণ্টা করে সময় দিতে  হবে । তবে তার মানে এই নয় যে, ঘড়ি ধরে ৭-৮ ঘণ্টা পড়েই স্টপ ।  
আসলে প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় আপনাকে অনেক বেশী ডেডিকেটেড থাকতে হবে । এই সময়ে আপনার সর্বোচ্চ প্রায়োরিটি এই এক্সামকে দিতে হবে । 
  আমি পড়তাম টপিক ধরে ধরে, তারপর টাইম শিডিউল করতাম। ধরেন ইংলিশে ৭-৮ টা টপিক আছে (গ্রামার, এর সাথে Word, Comprehension, Preposition, idiom etc )এবার আপনি ঠিক করেন কয়দিনে শেষ করবেন।
ধরেন ১৫ দিনে ইংলিশ শেষ করবেন । তাহলে আপনি ডেইলি ২ টা করে অবশ্যই শেষ করবেন। না হলে পরের দিনের উপর প্রেশার পরবে।
এখন যে টপিক পরবেন সেটার উপর অনলাইন থেকে কিছু টেস্ট(majortest, Magoosh, Indiabix)  দিয়ে ফেলেন, অথবা  ক্লিফস টোফেল টিপক-ওয়াইস গ্রামারের টেস্টগুলো দিয়ে ফেলেন । 
গ্রামার দেখেছিলাম, ক্লিফস টোফেল, অফিসিয়াল জিম্যাট থেকে । ব্যারন’স জিআরই এর আগের ভার্সন থেকেও কিছু শলভ করেছিলাম ।
রিডিং কম্প্রিহেনশন আইবিএর বিবিএ, এমবিএর আগের বছরের প্রশ্ন থেকেই দেখেছিলাম ।
৩,০০০-,৪০০০ ওয়ার্ড মুখস্ত করার ধৈর্য্য বা সময় কোনটাই ছিল না ।  তাই নেট থেকে জিআরইর হাই ফ্রিকোয়েন্সী ওয়ার্ড  লিস্ট ডাউনলোড করে সেগুলোই দেখেছিলাম ।
এই সময়গুলোতে প্রচুর পরিমাণে ইংলিশ শুনতাম যেন সেন্টেন্স স্ট্রাকচারগুলো ভালোভাবে মাথায় গেঁথে যায় । এছাড়া ইকোনোমিস্ট, গার্ডিয়ান থেকে নিয়মিত বিভিন্ন আর্টিকেল পড়তাম । সম্ভবত ভালো কিছু ইংলিশ নভেলও সেসময় পড়েছিলাম ।
কম্পিটিটিভ এক্সামগুলোতে নিজের প্রিপারেশনের সাথে সাথে অন্যের প্রিপারেশন সম্পর্কে ধারনা নেয়াও জরুরী । এ জন্য কয়েকটা কোচিং-এ মডেল টেস্ট দিয়েছিলাম ।
এতে করে অন্যদের চেয়ে কতটুকু এগিয়ে বা পিছিয়ে আছি, এটা বুঝতে পেরেছিলাম । আসলে কত মার্কস পাচ্ছেন এটার চেয়েও জরুরী হচ্ছে আপনি প্রেশার নিতে পারছেন কিনা বা সময়ের মধ্যে এক্সাম শেষ করতে পারছেন কিনা ।
 একইভাবে ম্যাথ এবং এনালিটিকালের জন্য টপিক ধরে ভাগ করে ফেলুন। 
ম্যাথসের আগের বছরের প্রশ্নগুলো একটু ঘাটাঘাটি করলেই বুঝে যাবেন যে, রিসেন্ট ইনটেকগুলোতে কোন প্রশ্নগুলো বেশী এসেছে । সে টপিকগুলোর উপর বেশী জোর দিয়েছিলাম ।
১টা বিষয় মাথায় রাখতে হবে, আপনাকে ১০০% মার্কস পেতে হবে না । ৬০-৭০% পেলেই যথেষ্ট ।
 সো যে টপিকগুলো খুব ফ্রিকোয়েন্টলী আসে না এবং যে টপিকগুলোতে আপনার কনসেপ্টও খুব ১টা ক্লিয়ার না সেরকম কিছু টপিক বাদ দেয়া যেতে পারে ।
ম্যাথসের জন্য বিবিএ, এমবিএ আগের বছরের প্রশ্ন, অফিসিয়াল জিম্যাট, জিআরই বিগ বুক আর নোভা’স ম্যাথ দেখেছিলাম ।  ভুল হওয়া ম্যাথগুলো আলাদা ১টা লিস্টে টুকে রাখতাম ।
এনালাইটিক্যাল পাজলের জন্য আইবিএর বিবিএ, এমবিএ আগের বছরের প্রশ্ন, জিআরই বিগ বুক শলভ করেছিলাম । এর বাইরে আর কিছু দেখার দরকার নেই ।
ক্রিটিক্যাল রিসোনিং এর জন্য বুক আর আগের বছরের  প্রশ্নগুলো দেখেছিলাম ।
রাইটিং পার্ট এর জন্য প্রতিদিন ১টা টপিকের উপর কিছু না কিছু লিখতাম ।  আমি র‍্যান্ডম টপিকের উপর লিখতাম । মাঝে মাঝে নিউজ পেপারের কোন আর্টিকেল বা ব্লগ পছন্দ সেতার উপর নিজের ভাষায় রিভিও লিখতাম ।
প্রতিদিন কোন টপিক কত সময় ধরে পড়তাম এটা কোন নির্দিষ্ট কোন কিছু ছিল না । কখনও কখনও ম্যাথ বেশী করতাম আবার কখনও কখনও ইংলিশ বা এনালাইটিক্যাল ।
তবে চেষ্টা করতাম পুরো সময়টা উপভোগ করতে । আমি যে, এসব আইবিএতে চান্স পাবার জন্য পড়ছি  এটা ভাবতাম না । আমার ভাবনায় ছিল নতুন কিছু জানা, নিজেকে আরো ডেভেলোপ করা এবং বাই-প্রোডাক্ট হিসেবে আইবিএর প্রিপারেশন নেয়া ।
এই সময়ে অন্য কমিটমেন্টগুলো থেকে নিজেকে যথা সম্ভব দূরে রাখতে হবে । বন্ধুবান্ধবদের সাথে হ্যাং আউট, বা এন্ট্রারটেইনমেন্টের অন্য সময়গুলো থেকে নিজেকে যথা সম্ভব দূরে রাখতে হবে ।
  লাইফটাকে কয়েকদিনের জন্য বোরিং বানালে এমন কিছু যাবে আসবে না। বাট এই সময়টাকে ভালোভাবে  কাজে  লাগানো গেলে সামনের দিনগুলোতে আপনার রিগ্রেট অনেক কমে যাবে । 
তবে যত যাই বলি এই টাইপের প্রিপারেশন মোটেও ইন্টারেস্টিং কিছু না । সো চান্স না পেলে আবারো আপনাকে এই বিরক্তিকর প্রসেসের মধ্যে দিয়ে যাতে হবে ।
সো মেক ইট ইউর ফার্স্ট এন্ড লাস্ট এটেম্পট !
———-

IBA MBA এর ৬০ ইনটেকের এক্সাম শুরু হতে আর খুব বেশী সময় বাকী নেই। সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী ২৫ মে সকাল ১০টায় এক্সাম হয়ে যাবার জোরালো সম্ভাবনা রয়েছে।

 

তাই IBA MBA এর ৬০ ইনটেককে সামনে রেখে স্পেশাল মক টেস্টে আবারো ভর্তি শুরু হল ! হুবুহু আইবিএর আদলে সম্পুর্ন নতুন প্রশ্নে ১০টি ফুল লেংথ(রাইটিং সহ) মডেল টেস্ট অনুষ্ঠিত হবে । এর পাশাপাশি ৩টি সলভ ক্লাস, ১টি স্পেশাল রাইটিং ক্লাসও অনুষ্ঠিত হবে । ফি; ২,০০০ টাকা । মক টেস্ট শুরু হবে আইবিএর সার্কুলার দেয়ার পর থেকে ইনশা-আল্লাহ !

 

আগ্রহীরা রেজিস্ট্রেশন করুন এই লিংক থেকে !

 
 
———————–

এছাড়াও এখন অন্যান্য যেসব কোর্সে ভর্তি চলছে

 
** আইবিএ এমবিএ স্পেশাল রেগুলার ব্যাচ
**এমবিএ প্লাস অল জব সল্যুশন

** প্রফেশনাল ইংলিশ স্পোকেন

 

পান্থপথ, মৌচাক এবং চিটাগাং ব্রাঞ্চে আইবিএর ডিসেম্বর’২০১৮ এক্সামের প্রস্তুতিতে স্পেশাল রেগুলার ব্যাচে ১,০০০ টাকা বিশেষ ডিসকাউন্টে ভর্তি চলছে। আগ্রহীরা রেজিস্ট্রেশন করুন এই লিংক থেকে

 

যারা JOB এবং এমবিএ দুটোর প্রস্তুতি এক সাথে নিতে চান তাদের জন্য রয়েছে Capstone এর সময়োপযোগী কোর্স MBA + All JOB Solution.

 
এই ব্যাচগুলোর অন্যতম বড় বৈশিষ্ট্যগুলো হচ্ছেঃ
 
একবার ভর্তি হয়ে জব কনফার্ম না হওয়া পর্যন্ত এখানে ক্লাস করা যাবে, কোন ধরণের এডিশনাল ফি দিতে হবে না । এছাড়া দুর্বল ব্যাসিকের শিক্ষার্থীদের জন্য থাকবে ফ্রি ব্যাসিক ডেভেলোপমেন্ট ক্লাস ।

 

পান্থপথ, মৌচাক এবং চিটাগাং ব্রাঞ্চে MBA+JOB ব্যাচে ক্লাস করার জন্য রেজিস্ট্রেশন করুন এই লিংক থেকে

 
 

যারা জব সেক্টর, ইন্টারভিউ এবং প্রোফেশনাল লাইফে আরো ভালো করার জন্য প্রোফেশনাল লেভেলের ইংলিশ স্পোকেন ডেভেলোপ করতে চান তাদের জন্য আমাদের নতুন কোর্স প্রফেশনাল ইংলিশ স্পোকেন ।

 

পান্থপথ, মৌচাক এবং চিটাগাং ব্রাঞ্চে ক্লাস করার জন্য রেজিস্ট্রেশন করুন এই লিংক থেকে

 

এছাড়া সরকারী ও বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, মাল্টি ন্যাশনাল ও ফাইনান্সিয়াল ইন্সটিটিউটগুলোতে চাকরীর মূল্যবান পরামর্শ ও দিক নির্দেশনার জন্য জয়েন করুন এই গ্রুপে
 
যারা আইবিএ / ব্যাংক জবস / ইএমবিএ / বিআইবিএম এর ফ্রি সাজেশন ও টিপস চান তারা আমাদের অফিসিয়াল ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করতে পারেন । জয়েন করতে এখানে ক্লিক করুন
 

পান্থপথ ব্রাঞ্চঃ

01972-277866 or 016 30 31 30 31
 
ঠিকানাঃ ১৫২/২, এ-২ গ্রীন রোড, রওশন টাওয়ার (লিফটের-৪), পান্থপথ সিগন্যাল, ঢাকা-১২০৫।
 
মৌচাক ব্রাঞ্চঃ
01999- 017 011
 
ঠিকানাঃ ৯০/১ আউটার সার্কুলার রোড, মালিবাগ, ঢাকা-১২০৫।
 
চিটাগাং ব্রাঞ্চঃ
01970- 985 420
 
ঠিকানাঃ

ও আর নিজাম রোড# ২, হাউস # ২৭, জিইসি, চিটাগাং

 

About the Author: